ডেঙ্গু মোকাবিলায় সব হাসপাতালগুলোকে প্রস্তুত রাখার নির্দেশ

by glmmostofa@gmail.com

নিজস্ব প্রতিবেদক।। 

দেশের সব হাসপাতালগুলোকে ডেঙ্গু মোকাবিলায়  প্রস্তুত রাখতে  সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন  স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন।

তিনি বলেছেন, ২৩ বছরে দেশে মোট ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগী ছিল প্রায় আড়াই লাখ। কিন্তু গত ২০২৩ সালে মাত্র এক বছরেই রোগী আক্রান্ত হয় প্রায় ৩ লাখ। এই সংখ্যা শুধু হাসপাতালে ভর্তিকৃতদের। এর বাইরে ডেঙ্গু রোগে আরও আক্রান্ত হয়েছিল।

 

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ ) সচিবালয়ে এক সভা শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন। ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া নির্মূলে করণীয় বিষয়াদি নিয়ে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের সঙ্গে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা করে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

তিনি বলেন, ডেঙ্গু রোগী নিয়ে আমাদের এবার আগে থেকেই সতর্ক না হয়ে কোন উপায় নেই। ডেঙ্গু প্রতিরোধ করতে হলে আমাদেরকে এক দিকে যেমন মশা মারতে হবে, আবার অন্যদিকে প্রাদুর্ভাব কমাতে আমাদেরকে আগে থেকেই সতর্ক ও সচেতন থাকতে হবে। মশা মারার জন্য ওষুধ যেমন মান সম্পন্ন কিনতে হবে তেমনি আমাদেরকে ভালো ট্রিটমেন্ট ব্যাবস্থাও রাখতে হবে।

সভায় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. রোকেয়া সুলতানা ঢাকা সিটি করপোরেশনকে লক্ষ্য করে বলেন, সিটি কর্পোরেশন থেকে প্রতিটি বাড়ি বাড়ি গিয়ে লার্ভার তথ্য জানতে হবে। নিয়ম না মানলে জরিমানার ব্যাবস্থা করতে হবে। দেশের মানুষের স্বাস্থ্যসেবায় যারা বাঁধা হবে তাদেরকে জরিমানা করাসহ আরো কঠোর নিয়ম হাতে নিতে হবে।

ঢাকা সিটি করপোরেশন দক্ষিণের মেয়র ফজলে নূর তাপস বলেন, ডেঙ্গু আক্রান্ত সব রোগীর সময় মতো চিকিৎসা সেবা দিতে হবে। কোন রোগীকে চিকিৎসা না দিয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়িতে পাঠানো যাবে না। ২০২৩ সালের ডেঙ্গুতে নারী ও শিশু বেশি কেন মারা গেল সেটি নিয়ে গবেষণা করে ব্যবস্থা নিতে হবে। আর, মানুষকে সঠিক তথ্য জানাতে হবে।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, আমরা প্রথমে বিটিআই (মশার ওষুধ) এক ঠিকাদারের মাধ্যমে এনেছিলাম। এটার মূল্য ছিল ৮৫ লাখ টাকা। এটা টেস্ট কেস হিসেবে চেয়েছিলাম। যে ঠিকাদার নিয়ে এসেছেন তিনি এটাকে মিস ডিক্লেয়ারেশন করেছেন এবং যা ইচ্ছে তাই করেছেন। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আমাদের সমালোচনা হয়েছে।

তিনি বলেন, ৫ টনের মূল্য ছিল ৮৭ লাখ টাকা। সেই ৫ টন বিটিআই আদালতের নির্দেশনার কারণে ব্যবহার করিনি। যে ঠিকাদার এ কাজ করেছেন তিনি একবার জেলেও গিয়েছেন। এজন্য এবার ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন সরাসরি বিটিআই আমদানি করতে যাচ্ছে। তিনি বলেন, আমরা আমাদের কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। গুলশান লেক যেদিন প্রথম পরিষ্কার করি সেখান থেকে কোটি কোটি মশা বের হয়ে গেছে। বুধবার  যাব উত্তরায়, রাজউকের প্রত্যেকটি খাল পরিষ্কার করার জন্য। ডেঙ্গু প্রতিরোধে সবাইকে দায়িত্ব নিতে হবে। আপনারা দেখেছেন, পেট্রোবাংলার নিচে থেকে লার্ভিসাইড পেয়েছি, জরিমানা করেছি ৫ লাখ টাকা।

সভার শুরুতে বাংলাদেশে ডেঙ্গু রোগের প্রাদুর্ভাব ও নানাবিধ সমস্যা তুলে ধরে মূল প্রবন্ধ তুলে ধরেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা) অধ্যাপক মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা। এতে আরও উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. জাহাঙ্গীর আলম, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক এবিএম খুরশীদ আলম, বিএমএ সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক প্রফেসর ডা. এবিএম আবদুল্লাহ, স্বাচিপ সভাপতি অধ্যাপক জামাল উদ্দিন চৌধুরী, বিএসএমএমইউর উপাচার্য ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ।

You may also like

সম্পাদক : হামীম কেফায়েত

গ্রেটার ঢাকা পাবলিকেশন নিউমার্কেট সিটি কমপ্লেক্স ৪৪/১, রহিম স্কয়ার

নিউমার্কেট, ঢাকা ১২০৫

যোগাযোগ : +8801712813999
ইমেইল : news@pran24.com